মিডিয়া নামক পশ্চিমা’র দালাল গুলি ইসলামের বিরুদ্ধে উঠেপড়ে লেগেছে: এরদোগান

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট তাইয়েব এরদোগান বলেছেন, পশ্চিমা মিডিয়া যে তুরস্কের বিপক্ষে নেতিবাচক সংবাদ প্রকাশে উঠেপড়ে লেগেছে, এর মূল কারণ হল ইসলাম ও মুসলিমদের প্রতি শত্রুতা। তুরস্কে স’ন্ত্রাসবাদ ও

শরণার্থী-এ দুটি বিষয়ে তারা লাগামহীন সংবাদ প্রচার করছে। মূলত ইসলামের শত্রুতায় পশ্চিমা মিডিয়া উঠেপড়ে লেগেছে। দেশটির রাজধানীর আঙ্কারায় ‘ভবিষ্যৎ কর্ম; চ্যালেঞ্জ ও অর্জন’ ভবিষ্যৎ কর্ম; চ্যালেঞ্জ ও অর্জন’

শীর্ষক একটি সেমিনারে বক্তৃতা প্রদানকালে এরদোগান এসব কথা বলেন। এরদোগান আরো বলেন, বৈশ্বিক অন্যায় ও অবিচারের বিপক্ষে আমাদের কণ্ঠস্বর যখনই গর্জে উঠে পশ্চিমা মিডিয়া তখনই আমাদেরকে আক্রমণ করে সংবাদ পরিবেশন করে,

আর ধীরে ধীরে এই অবস্থা আরও বৃদ্ধি পাচ্ছে। পশ্চিমা মিডিয়ার সমালোচনা করে তুর্কি প্রেসিডেন্ট বলেন, তারা বিশ্বকে তুরস্কের অর্থনীতির পতন দেখাতে চায়, অথচ তারা তুরস্কের বাস্তব অবস্থা জানে না যে, তুরস্ক ৪০ লাখ শরণার্থীকে আশ্রয় দিয়েছে। আসল কথা হলো তারা ইসলাম ও মুসলিমদের প্রতি শত্রুতাবশত এসব করছে।

“রাসূল (সা:)কে অনুসরণ করে সংখ্যালঘুদের উপসনালয়গুলো সংরক্ষণ করব”

সংখ্যালঘুদের পূর্ণ নিরাপত্তার অঙ্গীকার করে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, আমরা রাসূল সা.-এর দেখানো পথ অনুসরণ করে সংখ্যালঘুদের উপসনালয়গুলো সংরক্ষণ করব।

সোমবার ইসলামাবাদে সংখ্যালঘু দিবসের একটি অনুষ্ঠানে বক্তৃতাকালে ইমরান খান এসব কথা বলেন। খবর ডন উর্দূর। সংখ্যালঘু সম্প্রদায়কে আশ্বস্ত করে পাক প্রধানমন্ত্রী বলেন, ইসলামের ইতিহাসে কোথাও ধর্মান্তকরণে বাধ্য করার কথা বলা হয়নি।

যারা এই কাজ করছে, তারা ইসলামের ইতিহাস জানে না, নিজেদের ধর্ম সম্পর্কে জানেন না। তারা কোরআনও বুঝে না। তিনি বলেন, ইসলামে শুধুই আল্লাহর বাণী সবার কাছে পৌঁছে দেয়ার কথা বলে।

কারো প্রতি জুলুম বা মত চাপিয়ে দেয়া ইসলামবিরোধী কাজ। ইমরান খান বলেন, আইনের পূর্ণ বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে পাকিস্তানে সংখ্যালঘুদের সব অধিকার নিশ্চিত করা হবে। তাছাড়া সংখ্যালঘুদের জীবনমান উন্নয়নের লক্ষ্যে বিভিন্ন পদক্ষেপ নেয়া হবে।