নতুন ক্ষেপণাস্ত্র উদ্বোধন করল ফিলিস্তিনিরা

ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ আন্দোলন ‘আল মুকাভিমা আশ শা’বিয়া’র সামরিক শাখা ‘নাসের সালাউদ্দিন ব্রিগেড’ একটি নতুন ক্ষেপণাস্ত্র উদ্বোধন করেছে। সংগঠনটির ১৯তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে নয়া ক্ষেপণাস্ত্র ‘আইকিউ-টুয়েন্টি ফাইভ’ নামের ক্ষেপণাস্ত্রটি উদ্বোধন করা হয়।

সংগঠনটির একজন শহীদের নামের আদ্যক্ষর অনুযায়ী এর নামকরণ করা হয়েছে। নাসের সালাউদ্দিন ব্রিগেড জানিয়েছে, নয়া ক্ষেপণাস্ত্রটির পাল্লা হচ্ছে ২৫ কিলোমিটার এবং এটি অত্যন্ত নিখুঁতভাবে লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম।

ফিলিস্তিনের ‘আল মুকাভিমা আশ শা’বিয়া’ এক বিবৃতিতে বলেছে, ফিলিস্তিন মুক্ত না হওয়া পর্যন্ত প্রতিরোধ সংগ্রাম অব্যাহত থাকবে। মার্কিন ‘ডিল অব দ্য সেঞ্চুরি’ ফিলিস্তিনিদের স্বপ্ন ধ্বংসের চক্রান্ত এবং তা কোনো কাজে আসবে না।

একইসঙ্গে তারা গাজা অবরোধ প্রত্যাহার না হওয়া পর্যন্ত প্রতি শুক্রবারের বিক্ষোভ অব্যাহত রাখার ওপর জোর দিয়েছে। একইসঙ্গে তারা গাজা অবরোধ প্রত্যাহার না হওয়া পর্যন্ত প্রতি শুক্রবারের বিক্ষোভ অব্যাহত রাখার ওপর জোর দিয়েছে।

পাকিস্তানের জন্য যুদ্ধজাহাজ নির্মাণ শুরু করেছে তুরস্ক; কাজের উদ্বোধন করলেন এরদোগান

পাকিস্তান সামরিক বাহিনীর জন্য একটি যুদ্ধজাহাজ তৈরি করা শুরু করেছে তুরস্ক। গতকাল (রোববার) তুর্কি প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগান জাহাজ নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন। অনুষ্ঠানে তুর্কি প্রেসিডেন্ট বলেন, বিশ্বের যে দশটি দেশ জাহাজ নির্মাণ শিল্পে খুবই উন্নত তুরস্ক তার একটি।

ওই অনুষ্ঠানে তুরস্কের নৌবাহিনীর জন্য টিসিজি কিনালিয়াদা নামে একটি জাহাজের উদ্বোধন করা হয়। জাহাজটি এখন থেকে তুর্কি নৌ বাহিনীতে যুক্ত থাকবে। অনুষ্ঠানে এরদোগান বলেন, বন্ধুপ্রতিম পাকিস্তানের জন্য যে জাহাজ নির্মাণ শুরু হলো তা থেকে দেশটি উপকৃত হবে।

২০১৮ সালে পাকিস্তান নৌবাহিনী তুরস্কের কাছ থেকে চারটি জাহাজ কেনার জন্য চুক্তি সই করে। সম্প্রতি কাশ্মীর ইস্যুতে ভারত এবং পাকিস্তানের মধ্যে যে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে তাতে তুরস্ক পাকিস্তানের পাশে অবস্থান নিয়েছে।

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের বার্ষিক অধিবেশনে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান কাশ্মীর ইস্যুতে যে বক্তব্য দিয়েছেন তা যেমন বিশ্বব্যাপী সমাদৃত হয়েছে, তেমনি তুরস্ক এ বক্তব্যকে সমর্থন করেছে।