ইস্রায়েলি আগ্রাসনের পিতা হারনো মেয়েটি শীর্ষ শিক্ষার্থীদের তালিকায়, বাবার নাম নিতেই কান্নায় ভেঙ পড়ে

গাজায় শীর্ষস্থানীয় শিক্ষার্থীদের জন্য একটি অনুষ্ঠানে ফিলিস্তিনের পতাকাটি দাঁড়ানোর সময় এবং যখন তার বাবার নাম শুনলেন তখন সালওয়ার চোখের জল তার মুখে পড়ল।

গাজায় ইস্রায়েলি আগ্রাসনের সময় তার পিতা মোহাম্মদ তার তিনজন স্বজনসহ ১৮ জুলাই, ২০১৪-এ মারা গিয়েছিলেন।

যুদ্ধ-আগ্রাসন শেষ হতে পারে তবে এর দাগ ও বেদনা কখনও শেষ হয় না।

আগ্রাসনটি ৫১ দিন অবধি স্থায়ী হয়েছিল এবং ৫,৯৯ জন শিশু এবং ২ 26৩ জন মহিলা সহ প্যালেস্টিনিয়ান হাজার হাজার মানুষ আহত হয়েছে এবং তাদের বাড়িঘর এবং অঞ্চল থেকে প্রায় অর্ধ মিলিয়ন ফিলিস্তিনি বাস্তুচ্যুত হয়েছিল।

আরও সংবাদ

দিল্লির দাঙ্গায় বেছে বেছে মুসলিমদের ঘর–বাড়ি জ্বালানোর অভিযোগ সংখ্যালঘু কমিশনের

দিল্লির দাঙ্গায় বেছে বেছে মুসলিমদের ঘর–বাড়ি জ্বালানোর অভিযোগ সংখ্যালঘু কমিশনের
ভারতের রাজধানী দিল্লিতে সংঘর্ষের সময় মুসলিমদের সুরক্ষা দিতে ব্যর্থ পুলিশ। প্রায় পাঁচ মাস পর রিপোর্ট দিয়ে জানাল দিল্লি সংখ্যালঘু কমিশন। কেন্দ্রের নির্দেশেই রিপোর্ট তৈরি করেছে তারা।

তারা জানাচ্ছে, বেছে বেছে মুসলিমদের ঘর–বাড়ি জ্বালানো হয়েছে ‘‌দাঙ্গা’য়। অন্তত ৫৩ জনের মৃত্যু হয়েছে টানা তিন–চার দিনের হিংসায়। অধিকাংশই মুসলিম। আক্রান্ত কমপক্ষে ২০০ জন, রিপোর্টে বলছে ওই সংখ্যালঘু কমিশন।
উল্লেখ্য সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে বিক্ষোভে ফেটে পড়েছিল পুরো ভারত।

সিএএ–বিরোধী আন্দোলনের কেন্দ্রবিন্দুই ছিল দিল্লির শাহিনবাগ। দিল্লি পুলিশ–বিজেপি অস্বীকার করলেও রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের অভিযোগ, আন্দোলনকারীদের নিশানা করে বিজেপি নেতা কপিল মিশ্রের ‘‌বিষাক্ত’ ভাষণের পরই হিংসার সূত্রপাত হয় রাজধানীতে। একেবারে ছক কষে মুসলিমদের ঘরবাড়ি, দোকান চিহ্নিত করে ভাঙচুর চালানো হয়। জ্বালিয়ে দেওয়া হয়।

‘‌দাঙ্গা’য় ১১টি মসজিদ, ৫টি মাদ্রাসা, কবরখানা তছনছ করা হয়েছে। সিএএ–বিরোধী আন্দোলন বন্ধ করতেই পুলিশের সাহায্য নিয়ে হামলা চালিয়েছে সিএএ–সমর্থকেরা। ঘরবাড়ি মুসলিমদের জ্বললেও তাঁদের বিরুদ্ধেই মামলায় দায়ের করেছে পুলিশ, রিপোর্টে স্পষ্ট বক্তব্য কমিশনের। ‘‌দাঙ্গা’‌র সময়ে চুপচাপ দাঁড়িয়ে দেখেছে, ‘‌দাঙ্গাবাজ’দের থামানোর চেষ্টা করেনি পুলিশ এমনটাই দাবি সংখ্যালঘু কমিশনের ।‌ তবে দিল্লি পুলিশের মুখপাত্র অনিল মিত্তাল এ অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, পুলিশ সর্বতোভাবে নিরপেক্ষ অবস্থানে ছিল।