ইহুদিবাদী ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার খবর নাকচ করল ইন্দোনেশিয়া

ইহুদিবাদী ইসরাইলের সঙ্গে ইন্দোনেশিয়া খুব শিগগিরই সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা করবে বলে ইহুদিবাদী ইসরাইলের গণমাধ্যম যে খবর দিয়েছে তা নাকচ করেছে জাকার্তা।

ইন্দোনেশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র তেউকু ফাইজাসিয়া গতকাল মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে বলেছেন, ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা করার কোনো সম্ভাবনা নেই এবং ইন্দোনেশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কখনো ইসরাইলের সঙ্গে যোগাযোগ করে নি।

ফিলিস্তিন ইস্যুতে ইন্দোনেশিয়ার যে পররাষ্ট্র নীতি রয়েছে তা মূলত দেশের সংবিধান অনুসরণ করেই পরিচালিত হচ্ছে।

ইহুদিবাদী ইসরাইলের ইংরেজি দৈনিক জেরুজালেম পোস্ট অজ্ঞাত একটে কূটনৈতিক সূত্রের বরাত দিয়ে রোববার এক প্রতিবেদনে বলেছে,

ওমান এবং ইন্দোনেশিয়া আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা করতে পারে। এরপর ইন্দোনেশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র তেউকু ফাইজাসিয়া এসব কথা বললেন।

জেরুজালেম পোস্টকে ওই সূত্র আরো বলেছে যে, ইন্দোনেশিয়া এবং ওমান ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে আলোচনা অনেক দূর এগিয়ে নিয়েছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনোল্ড ট্রাম্প ক্ষমতা থেকে বিদায় নেয়ার আগেই দেশ দুটি ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা করতে পারে। আগামী ২০ জানুয়ারি ট্রাম্প বিদায় নেবেন।

দীর্ঘদিন ধরে ইন্দোনেশিয়া ফিলিস্তিনের জনগণ এবং স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার সমর্থক। দেশটি সবসময় ইসরায়েলের সঙ্গে যেকোনো ধরনের সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার কথা নাকচ করে এসেছে।

গত ৩ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের বার্ষিক অধিবেশনে ভাষণ দেয়ার সময় ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদো ফিলিস্তিনের প্রতি তার দেশের অকুণ্ঠ সমর্থনের কথা ঘোষণা করেন।