মুসলিম জাতি এই অপমান সহ্য করবে না: আয়াতুল্লাহ খামেনেয়ী

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী আবারো ইহুদিবাদী ইসরাইলের সঙ্গে কয়েকটি আরব দেশের সম্পর্ক স্বাভাবিক করার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, মুসলিম জাতিগুলো ইহুদিবাদী সরকারের সঙ্গে আপোষরফার এই অপমান কখনো মেনে নেবে না।

মঙ্গলবার শেষ বেলায় এক টুইটার বার্তায় আয়াতুল্লাহ খামেনেয়ী বলেন, আমেরিকা যদি ভেবে থাকে তারা ‘এই পদ্ধতিতে মধ্যপ্রাচ্য সংকটের সমাধান করতে পারবে’ তাহলে মার্কিনীরা চরম ভুলের মধ্যে রয়েছে।

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা বলেন, যে আরব সরকারই ইসরাইলের সঙ্গে আলোচনায় বসবে দেশের জনগণের মধ্যে ওই সরকারের জনপ্রিয়তায় ধস নামবে।

আয়াতুল্লাহ খামেনেয়ীর টুইটার বার্তায় বলা হয়েছে, “মুসলিম জাতিগুলো কখনোই ইহুদিবাদী সরকারের সঙ্গে আপোষরফার এই অপমান মেনে নেবে না। আমেরিকা যদি ভেবে থাকে তারা এই পদ্ধতিতে মধ্যপ্রাচ্য সংকটের সমাধান করতে পারবে তাহলে মার্কিনীরা চরম ভুল করছে।যে সরকারই দখলদার ইসরাইলের সঙ্গে আপোষ আলোচনায় বসবে দেশে ওই সরকারের জনপ্রিয়তায় ধস নামবে।”

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা এর আগে ইসরাইল সরকারের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার মাধ্যমে গোটা মুসলিম বিশ্বের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করার জন্য সংযুক্ত আরব আমিরাতের তীব্র নিন্দা জানান। তিনি বলেন, এই বিশ্বাসঘাতকা দীর্ঘস্থায়ী হবে না। সূত্র: পার্সটুডে

ইসলাম-মুসলমানদের আক্রমণ করা ম্যাঁক্রোর নীতি: এরদোগান

ইসলাম-মুসমানদের আক্রমণ করা ম্যাঁক্রোর নীতি বলে মন্তব্য করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান।

মঙ্গলবার তুর্কির ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে এক অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে তিনি এ কথা বলেন।

মুসলিম বিশ্বকে সতর্ক করে এরদোগান বলেন, বিশ্বজুড়ে মুসলমানরা তাদের সম্প্রদায়কে বর্ণবাদ ও সন্ত্রাসবাদের মতো বিপদের হাত থেকে রক্ষা করতে হবে;এটি মুসলমানদেরকে ভেতর থেকে পরাস্ত করার হুমকি ঝুঁকি আনছে।

তুর্কি প্রেসিডেন্ট বলেন, বর্ণবাদ, জাতীয়তাবাদ, সাম্প্রদায়িকতা ও বিশেষত সন্ত্রাসের মতো অশান্তি এমন বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে যা ইসলামি বিশ্বকে ভেতর থেকে পতনের দিকে নিয়ে যেতে পারে।

বিশ্বজুড়ে প্রতিদিন গড়ে এক হাজার মুসলমান সন্ত্রাস অথবা সহিংসতার শিকার হয়। অজ্ঞতা ও অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্বের কারণে মুসলমানরা সন্ত্রাস, ক্ষুধা এবং বৈষম্যের মতো এমন অনেক জটিল সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছে’ যোগ করেন এরদোগান।

তুর্কি প্রেসিডেন্ট পশ্চিমা বিশ্বের ইসলাম ফোবিয়া নীতির সমালোচনা করেন। সবশেষ উদাহরণ হিসেবে তিনি ফ্রান্স, ইউরোপ ও অস্ট্রেলিয়ার কথা তুলে ধরেন।

এরদোগান বলেন, বিশেষ করে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ম্যাঁক্রো ইসলাম ও মুসলামানদের আক্রমণ করছে।

ইয়েনি শাফাক