ইসরাইলকে রক্ষা নয় এটির অপরাধকে প্রতিহত করুন

জার্মানির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ইরানের পরমাণু সমঝোতা বাতিল করে দেশটির সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করার যে আহ্বান জানিয়েছেন তার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে তেহরান। ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আব্বাস মুসাভি বলেছেন, জার্মানির বরং উচিত ইহুদিবাদী ইসরাইলের অপরাধযজ্ঞের প্রতি সমর্থন প্রত্যাহার করে মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি ও স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠায় সহযোগিতা করা।

এর আগে জার্মান ফেডারেল পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গত সোমবার ইরানের পরমাণু সমঝোতার চেয়ে ইহুদিবাদী ইসরাইলের স্বার্থ রক্ষাকে প্রাধান্য দেয়ার জন্য জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মার্কেলের প্রতি আহ্বান জানান।
তিনি বলেন, মধ্যপ্রাচ্যের চলমান উত্তেজনায় ইসরাইলের প্রতি সমর্থন প্রদর্শনের জন্য বার্লিনের উচিত তেহরানের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে ইরান-বিরোধী নিষেধাজ্ঞায় যোগ দেয়া।

ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি’র কমান্ডার-ইন-চিফ মেজর জেনারেল হোসেইন সালামির জেনারেল সালামি সোমবারই এক ভাষণে বিভিন্ন কারণ উল্লেখ করে বলেছিলেন, ইহুদিবাদী ইসরাইল ধ্বংসের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। জার্মান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আহ্বানের প্রতিক্রিয়ায় মুসাভি বুধবার তেহরানে এক বিবৃতিতে বলেন।

উত্তেজনা প্রশমন করে মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি প্রতিষ্ঠার একমাত্র উপায় হচ্ছে এ অঞ্চলে ইহুদিবাদী ইসরাইলের আগ্রাসন প্রতিহত করা। তিনি বলেন, ইসরাইলের ধ্বংসাত্মক, হস্তক্ষেপমূলক ও অমানবিক তৎপরতা প্রতিহত করতে পারলেই মধ্যপ্রাচ্যের সব উত্তেজনার অবসান ঘটবে। সূত্র: পার্সটুডে

মনমোহন সিংকে আমন্ত্রণ জানাল পাকিস্তান

পাক-ভারত তুমুল উত্তেজনার মধ্যেই ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে পাকিস্তান। শিখ ধর্মাবলম্বীদের কারতারপুর করিডোরের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তাকে এ আমন্ত্রণ জানিয়েছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী প্রতিবেশী পাকিস্তান।

সোমবার পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কোরেশি এক ভিডিওবার্তায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, কারতারপুর করিডোরের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানটি আমাদের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এটি পাকিস্তানের জন্য অত্যন্ত খুশির বিষয়, পাকিস্তান সরকার এ জন্য ব্যাপক প্রস্তুতিও নিচ্ছে।

পাক পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বিষয়টিতে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের ব্যক্তিগত আগ্রহ রয়েছে। পরামর্শের পর আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি যে, কারতারপুর করিডোরের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আমরা ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংকে আমন্ত্রণ জানাবো। ভিডিও তে মনমোহন সিং শিখদেরও প্রতিনিধিত্ব করেন।

এজন্য পাকিস্তান সরকারের পক্ষ থেকে এবং আমি পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে তাকে আমন্ত্রণ জানাচ্ছি। সরকারিভাবে মনমোহন সিংকে আনুষ্ঠানিকভাবে আমন্ত্রণ পাঠানো হবে বলেও জানান তিনি। ৩৭০ধারা বাতিলের পরই ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে সম্পর্কের অবনতি ঘটে।

তবে দিল্লীর অনুরোধে সাড়া দিয়ে কারতারপুর সাহিব করিডোর ভারতীয় শিখ তীর্থযাত্রীদের জন্য খুলে দিবে পাকিস্তান। কারতারপুর করিডোরের কাজ শেষ হওয়ার আগেই ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তিক্ততার পরিবেশ।

আগামী ৯ নভেম্বর করিডোরটি খুলে দিচ্ছে পাকিস্তান। গুরু নানকের ৫৫০ তম জন্মজয়ন্তীতে কারতারপুর করিডোর খোলা রাখা হবে এবং পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ২৮ নভেম্বর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন। সূত্র: ডন ও জিয়ো নিউজ উর্দূ