গরুর খামারে গোবরের ট্যাংকে পড়ে ৪ ভারতীয়ের মৃ’ত্যু

গরুর খামারে গোবরের ট্যাংকে পড়ে চার ভারতীয়ের করুণ মৃ’ত্যু হয়েছে। তারা সবাই শিখ সম্প্রদায়ের লোক। ইতালির উত্তরাঞ্চলীয় পাভিয়ার অঞ্চলে এ ঘটনা ঘটেছে। খবরে বলা হয়েছে, নি’হতদের মধ্যে দুইজন ছিলেন ওই খামারের মালিক।

আর বাকি দুইজন সেখানকার কর্মচারী। তদন্তকারীরা বলছেন, গোবর সার থেকে নির্গত কার্বন ডাই-অক্সাইড গ্যাসের ক্রিয়ায় তাদের মৃ’ত্যু হচ্ছে। বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নিহত খামার মালিক দুইজন হলেন-

প্রেম সিং ও তার ভাই তারসেম সিং। আর দুই কর্মচারী হলেন- আরমিনদার সিং এবং মাজিনদার সিং। এরা সবাই ভারতীয় নাগরিক। পাঞ্জাব থেকে ইতালিতে গিয়েছিলেন তারা। ইতালির গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে,

২০১৭ সালে মিলান থেকে প্রায় ৪৫ কিলোমিটার দূরে পাভিয়া অঞ্চলে খামারটি স্থাপন করেন ওই দুই ভাই। গত বৃহস্পতিবার ওই খামারে গোবর সারের ট্যাংক খালি করছিলেন দুই কর্মচারী। এদের একজন ট্যাংকের ভেতর পড়ে যান।

তাকে উদ্ধারের জন্য বাকিরা ট্যাংকের ভেতর লাফ দেন। কিন্তু সেখান থেকে তারা আর উঠতে পারেননি। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এসে তাদের মরদেহ উদ্ধার করে। কার্বন ডাই-অক্সাইড গ্যাসের ক্রিয়ায় তাদের মৃ’ত্যু হয়েছে বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।

কাশ্মীর ইস্যুতে পাকিস্তানের পাশে থাকার ঘোষণা ৫৮ দেশের

মুসলিম বিশ্বের অন্যতম প্রভাবশালী নেতা ও পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, কাশ্মীর ইস্যুতে ইসলামাবাদকে সমর্থন দিচ্ছে জাতিসংঘ মানবাধিকার পরিষদের ৫৮টি দেশ। কাশ্মীরে আরোপিত নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়ে-

তাদের অধিকার রক্ষার দাবিতে ভারতের ওপর চাপ সৃষ্টিতে এসব দেশ একমত বলেও জানান তিনি। এক টুইটার বার্তা এসব কথা বলেছেন ইমরান খান। তিনি বলেন, মানবাধিকার পরিষদের ৫৮ দেশ পাকিস্তানের পক্ষে যোগ দেয়ায় তাদের সাধুবাদ জানাচ্ছি।

ভারতের বলপ্রয়োগ বন্ধ করা, অবরোধ ও অন্যান্য নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়া, কাশ্মীরিদের অধিকার রক্ষা ও সম্মান এবং বিতর্কিত কাশ্মীর ইস্যুকে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের মাধ্যমে সমাধানে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের দাবি জোড়ালো হচ্ছে।

এ নিয়ে ইমরান খান পরে আরেকটি টুইট করেন। এতে তিনি লিখেছেন, জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাব, আন্তর্জআতক আইন এবং দ্বিপাক্ষিক চুক্তির মাধ্যমে কাশ্মীর সমস্যার একটি শান্তিপূর্ণ সমাধানে ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) আহ্বানকে স্বাগত জানাচ্ছি।’