‘সম্পর্ক স্বাভাবিক’ করতে চাওয়া মুসলিম দেশগুলোর মধ্যে পাকিস্তানের নাম নেই : ইসরাইল

যেসব মুসলিম দেশের সঙ্গে ইহুদিবাদী সন্ত্রাসীদের অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইল ‘সম্পর্ক স্বাভাবিক’ করার চেষ্টা করছে তার মধ্যে পাকিস্তানের নাম নেই বলে জানিয়েছেন দেশটির এক মন্ত্রী।

বুধবার অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইলের আঞ্চলিক সহযোগিতা বিষu য়ক মন্ত্রী অফির আকুনিস ইয়েনেত টিভিকে বলেন, আগামী মাসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট হোয়াইট হাউস ছেড়ে যাওয়ার আগে আরও দুটি দেশের সঙ্গে ইসরাইলের সম্পর্ক স্বাভাবিকীকরণের ব্যবস্থা করবেন।

গত কয়েক মাসে মার্কিন প্রশাসনের সহযোগিতায় সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন, সুদান ও মরক্কোর সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিককরণের চুক্তির নামে স্বীকৃতি আদায় করে নিয়েছে করে অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইল।

নভেম্বরে অনুষ্ঠিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে পরাজিত হলেও মধ্যপ্রাচ্যে মার্কিন অবস্থান জোরাল করতে ইসরাইলের সঙ্গে আরও কয়েকটি দেশের সঙ্গে সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে ট্রাম্প প্রশাসন।

আগামী ২০ জানুয়ারি ট্রাম্পের হোয়াইট হাউস ছাড়ার আগে আরও দুইটি দেশ ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা করবে বলে দাবি করেন আঞ্চলিক সহযোগিতা বিষয়ক মন্ত্রী। তবে কোন দুই দেশ, তার নাম প্রকাশ করেননি।

এর মধ্যে উপসাগরীয় একটি দেশ থাকার ইঙ্গিত দিয়েছেন। তবে সেটি সৌদি আরব নয়। অন্যটি হবে আরও পূর্বের একটি মুসলিম দেশ তবে সেটি আকারে ছোট নয় আবার পাকিস্তানও নয় বলেও উল্লেখ করেন আকুনিস।

এর আগে চলতি সপ্তাহে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কোরেশি বলেন, আমরা ইসরাইলকে স্বীকৃতি দেবো না।

অপরদিকে মুসলিম অধ্যুষিত দেশ ইন্দোনেশিয়া গত সপ্তাহে জানিয়েছে, ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার আগ পর্যন্ত তারা ইসরাইলকে স্বীকৃতি দেবে না। ওমান মার্কিন মধ্যস্ততার প্রশংসা করলেও নিজেদের সঙ্গে ইসরাইলের সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার কথা অস্বীকার করেছে।

সূত্র: আলজাজিরা