৩৬ রানে শেষ ভারতের টেস্ট ইনিংস,অস্ট্রেলিয়ার সামনে মুখ লুকানোর পরিস্থিতি ভারতীয় ক্রিকেটারদের

ঠিক ৯৪ মিনিট। প্রথম ইনিংসে ৫৩ রানের লিড নেওয়ার পর তৃতীয় দিনের দুপুরে ঠিক এই সময়টুকু টিকল ভারতীয় ব্যাটিং। কোনওরকম প্রতিরোধ ছাড়াই লজ্জাজনকভাবে অস্ট্রেলিয়ার সামনে আত্মসমর্পণ করল ভারত।এক উইকেটে ন’রান নিয়ে খেলতে নেমে শনিবার অ্যাডিলেডে প্রথম সেশনও পার করতে পারেনি ভারত। প্রথম ধাক্কাটা দিয়েছিলেন প্যাট কামিন্স। তারপর একে একে চেতেশ্বর পূজারা, মায়াঙ্ক আগরওয়াল, বিরাট কোহলি, অজিঙ্কা রাহানেরা প্যাভিলিয়নে ফেরেন।শেষপর্যন্ত ন’রানে ৩৬ রান তুলতে পারে ভারত। কামিন্সের বাউন্সারে চোট লেগে মাঠের বাইরে বেরিয়ে যান শামি। তার জেরে অলআউট হতে হয়নি। কিন্তু টেস্টের ইতিহাসে ভারতের সর্বনিম্ন স্কোরের লজ্জার নজির গড়েন বিরাটরা। একজন ব্যাটসম্যানও দু’অঙ্ক পেরোতে পারলেন না। ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের স্কোর – ৪, ৯, ২, ০, ৪, ০, ৮, ৪, ০, ৪ এবং ১।সেই ব্যাটিং বিপর্যয়ের জেরে টুইটারে ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন ভারতীয় সমর্থকরা। কটাক্ষও ছুড়ে দিয়েছেন। হতবাক হয়ে গিয়েছেন প্রাক্তন ক্রিকেটাররা। টুইটারে বীরন্দ্র সেহওয়াগ লেখেন, ‘যে ওটিপি ভুলে যাওয়া উচিত – ৪৯২০৪০৮৪০৪১।’রবি শাস্ত্রী একটা সময় ভারতের সেরা টেস্ট দল বলেছিলেন বিরাট বাহিনী। তা নিয়ে এক নেটিজেন লেখেন, দারুণ ব্যাটিংয়ের পরিস্থিতিতে ভালো পেস বোলিংয়ের স্পেল টিকে থাকতে পারে না। আর এই দলকে ২০০০ সালের দলের সঙ্গে তুলনা করা হচ্ছে। যে দল স্টিভ (ওয়াওয়ের) নেতৃত্বে গ্নেন ম্যাকগ্রাথ, ব্রেট লি, ওয়ার্নের শক্তিশলী অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে থেলেছিল। ভেবে দেখার সময় এসেছে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।’