চীনের কাছে সেনা হারানোর পর এবার ইসরাইলে ড্রোন মিসাইল কিনবে ভারত

পূর্ব লাদাখে চীনের সঙ্গে সীমান্ত নিয়ে বিরোধে জড়িয়ে পড়ার পর ভারত তার নজরদারি সামর্থ্য ও ফায়ারপাওয়ার বাড়ানোর পরিকল্পনা করছে। এরই অংশ হিসেবে জরুরিভিত্তিতে ইসরাইলের কাছ থেকে আরো হেরন ড্রোন ও স্পাইক অ্যান্টি-ট্যাঙ্ক গাইডেড মিসাইল কেনা হচ্ছে। হেরন ড্রোনগুলো এরই মধ্যে বিমান, নৌ ও সেনাবাহিনী ব্যবহার করছে। লাদাখ সেক্টরে সেনাবাহিনীর সারভেইল্যান্স ও টার্গেট একুইজিশন ব্যাটারি ও বিমান বাহিনী এগুলোকে ব্যাপকভাবে কাজে লাগাচ্ছে।

ইসরাইলের কাছ থেকে নতুন করে হেরন ড্রোন ও স্পাইক অ্যান্টি-ট্যাঙ্ক গাইডেড মিসাইল কেনার পরিকল্পনা করছে ভারত।

চীনের সঙ্গে চলমান উত্তেজনার মধ্যে নজরদারি ক্ষমতা আরও জোরদার করতে চাইছে দেশটি।

সরকারি সূত্রের বরাতে ভারতীয় বার্তা সংস্থা এএনআই জানিয়েছে, বিমান বাহিনীর বিদ্যমান বহরে হেরন ইউএভি যুক্ত করা দরকার। সেজন্যই তারা ইউএভি-র জন্য অর্ডার দেয়ার পরিকল্পনা করছে।

ইহুদিবাদী রাষ্ট্র ইসরাইল থেকে আগেও বিভিন্ন প্রযুক্তির ড্রোনসহ নানা যুদ্ধসরঞ্জাম কিনেছে ভারত। জানা যায়, ইসরাইলি ড্রোন ব্যবহার করে দিন-রাত সবসময়ই ভালো ছবি সংগ্রহ করা যায়। এর মাধ্যমে প্রায় ২ কিলোমিটার দূর থেকে ব্যবহার করে সীমান্তে নজর রাখা সম্ভব।

ইসরাইলের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে এ ড্রোনগুলো তৈরি হয় ২০১৮-তে। যে কোনো আবহাওয়াতেই এ ড্রোন উড়ানো সম্ভব।

১০ হাজার মিটার থেকে ৩০ হাজার ফুট উঁচু পর্যন্ত উড়তে পারে এ ড্রোন, তুলে আনতে পারে রিয়েল টাইম ভিডিও ফুটেজ।