আফ্রিকার ৫ কোটি মানুষ দুর্ভিক্ষে পড়তে পারে: আফ্রিকান উন্নয়ন ব্যাংক

করোনা মহামারিতে আফ্রিকা মহাদেশের প্রায় ৫ কোটি মানুষ মারাত্মক দুর্ভিক্ষে পড়তে পারে। মঙ্গলবার আফ্রিকান উন্নয়ন ব্যাংকের (এএফডিবি) এক প্রতিবেদনে এ এ আশঙ্কা করে বলা হয়েছে, আফ্রিকা মহাদেশের প্রায় এক-তৃতীয়াংশ মানুষ এরইমধ্যে আন্তর্জাতিক মানদণ্ডের চেয়ে কম আয়ের মধ্যে রয়েছে এবং এ পরিস্থিতি আরো মারাত্মক আকার ধারণ করতে পারে। -ভয়েস অব আমেরিকা, এএফপি, পার্সটুডে

এএফপি জানিয়েছে, ওশেনিয়া অঞ্চলের পরেই আফ্রিকা মহাদেশ হচ্ছে কোভিড-১৯ এর মহামারীতে সবচেয়ে কম ক্ষতিগ্রস্ত অঞ্চল। এ মহাদেশে এ পর্যন্ত পাঁচ ৫ লাখ মানুষ সংক্রমিত হয়েছে এবং ১১,৭০০ মানুষ মারা গেছে।

করোনা মোকাবেলার জন্য যে লকডাউন দেয়া হয়েছে তাতে আফ্রিকা মহাদেশের স্বাস্থ্যব্যবস্থা এবং মানুষের কর্মসংস্থান মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সব ধরনের মানুষের আয় রোজগার কমে গেছে এবং মহাদেশব্যাপী অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড স্থবির হয়ে পড়েছে। বহু দেশের বার্ষিক জিডিপি কমে গেছে

আর্র পড়ুন- পশ্চিম তীর সংযুক্ত করার ইসরাইলী পরিকল্পনা সর্বসম্মতভাবে প্রত্যাখ্যান করেছে পাকিস্তান

জর্ডান উপত্যকা ও পশ্চিম তীরের সব বসতি সংযুক্ত করার ইসরাইলী পরিকল্পনা সর্বসম্মতভাবে প্রত্যাখ্যান করেছে পাকিস্তানের পররাষ্ট্র দফতর, আইন প্রণেতা ও রাজনীতিকরা।

পররাষ্ট্র দফতরের মুখপাত্র আয়শা ফারুকি এই সংবাদ সংস্থাকে বলেন, ফিলিস্তিনের ব্যাপারে পাকিস্তানের নীতি অপরিবর্তনীয়। ইসরাইলের কোয়ালিশন সরকার পশ্চিম তীরকে সংযুক্ত করার যে পরিকল্পনা করছে তাতে আমরা উদ্বিগ্ন। খবর আনাদোলু এজেন্সি’র।

তিনি বলেন, অধিকৃত ফিলিস্তিনি ভূমির যেকোন সংযুক্তির বিরোধিতা করে ইসলামাবাদ। এটা আন্তর্জাতিক আইনের গুরুতর লঙ্ঘন এবং এতে ইতোমধ্যে অশান্ত হয়ে পড়া পরিস্থিতির আরো অবনতি ঘটবে।

১৯৬৭ সাল থেকে ফিলিস্তিনি ভূখণ্ড অবৈধভাবে দখল করে আছে ইসরাইল।

মুখপাত্র বলেন, ফিলিস্তিনের ব্যাপারে জাতিসংঘ ও ওআইসি’র গ্রহণ করা প্রস্তাবগুলো সমর্থন করে পাকিস্তান এবং ফিলিস্তিনীদের অধিকার সমুন্নত করতে এগিয়ে আসার জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানায়।

পাকিস্তান পার্লামেন্টের উচ্চ কক্ষের ডেপুটি চেয়ারম্যান সালিম মানদিভিওয়ালা বলেন, ইসরাইলের এই পরিকল্পনার ব্যাপারে তার দেশ চুপ থাকতে পারে না এবং ফিলিস্তিনিদের প্রতি অব্যাহত সমর্থন দিয়ে যাবে।

আরো পড়ুন-করোনাকে অস্বীকার করে নিজেই আক্রান্ত হলেন ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট

করোনাকে অস্বীকার করে নিজেই আক্রান্ত হলেন ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট
করোনাকে প্রথমে পাত্তাই দেননি তিনি। এমন কি করোনাভাইরাসকে ভাওতাবাজি বলেও উল্লেখ করেছিলেন। কিন্তু এবার তিনি নিজেই করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জাইর বলসোনারো।

মঙ্গলবার (৭ জুলাই) ব্রাজিলের স্থানীয় সময় দুপুরে তিনি নিজেই এই তথ্য জানিয়েছেন। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম গার্ডিয়ান এই তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছে।

জাইর বলসোনারো বলেন, ‘ভয়ের কোন কারণ নেই। এটাই জীবন। এবং জীবন চলমান। আমার জীবন ও ব্রাজিলের ভবিষ্যত বিনির্মাণে যে দায়িত্ব ঈশ্বর দিয়েছেন তার জন্যে তাকে ধন্যবাদ।’
এর আগে সোমবার (৬ জুলাই) জাইর করোনা উপসর্গ থাকায় পরীক্ষা করান।

ওই সময় প্রেসিডেন্ট জাইর বলসোনারো বলেছিলেন, ফুসফুসের পরীক্ষা করিয়ে এই মাত্র হাসপাতাল থেকে ফিরলাম। ফুসফুস ঠিক আছে। কভিড-১৯ উপসর্গ থাকায় পরীক্ষা করিয়েছি , কিন্তু সব ঠিক আছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত প্রেসিডেন্ট জাইর বলসোনারো শুরু থেকে করোনাকে পাত্তা দেননি। তিনিও ট্রাম্পের সুরে সুর মিলিয় কথা বলেছেন। তবে এখন তাকেও মাস্ক পরতে দেখা যাচ্ছে। কিছুদিন আগে শতশত মানুষ নিয়ে রীতিমতো র‌্যালিতে হেঁটেছেন তিনি।

নভেল করোনাভাইরাসে ব্রাজিলের অবস্থা দিনকে দিন খারাপ হচ্ছে। আন্তর্জাতিক জরিপকারী সংস্থা ওয়ার্ল্ডওমিটারের হিসাব অনুযায়ী আক্রান্ত এবং মৃতের তালিকায় তারা দ্বিতীয় স্থানে। শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র।

লাতিন আমেরিকার সবচেয়ে বড় দেশটিতে এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্ত ১৬ লাখ ২৬ হাজার ৭১ জন। মারা গেছেন ৬৫ হাজার ৫৫৬ জন। সুস্থ হয়েছেন ৯ লাখ ৭৮ হাজার ৬১৫ জন।