ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প নিয়ে বন্যাদুর্গত আসামে চিকিৎসা দিচ্ছেন ভারতীয় মুসলিম ডাক্তার কাফিল খান

২০১৭ সালে বিজেপি শাসিত উত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুরের বিআরডি মেডিক্যাল কলেজে শিশু মৃত্যুর ঘটনায় অভিযুক্ত শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ কাফিল খানকে সাসপেন্ড করার আদেশ প্রত্যাহার করার-

দাবি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি লিখল ইন্ডিয়ান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (আইএমএ)। ডাঃ কাফিল খানকে বরখাস্ত করার পর তার পরিবারকে বেঁচে থাকার জন্য লড়াই করতে হচ্ছে উল্লেখ করে-

ডাক্তারদের এই সংগঠনও তার বিরুদ্ধে সকল আইনি মামলা প্রত্যাহার করার দাবি জানিয়েছে। তবে তাঁর এই দুর্দশার মধ্যেও তিনি মানবসেবার মহান ব্রত ভোলেননি। দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য আসাম এখন জলের তলায়।

সেখানকার আর্ত, অসহায় মানুষের ক্রন্দন তার কোমল হৃদয়কে তাকে সেখানে টেনে নিয়ে গেছে। চার দিনের মেডিকেল টিম নিয়ে তিনি সেখানকার বিভিন্ন বন্যা দুর্গত প্রত্যন্ত এলাকায় মানুষের সাহায্যার্থে হাত বাড়িয়ে দিচ্ছেন।

আজ তিনদিন ধরে তার স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘ডাক্তার কাফিল খান মিশন স্মাইল ফাউন্ডেশন এবং মেডিকেল সার্ভিস সেন্টার’ সেখানকার বিভিন্ন বন্যাবিধ্বস্ত অসহায় মানুষদের বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছেন।

ডাক্তার কাফিল খান সহ মোট ১৪ জন ডাক্তার সর্বমোট ৪৪৬ জন রোগীকে চিকিৎসা করে বিনামূল্যে ঔষধ দিয়েছেন এই তিন দিন ধরে। ডাক্তার কাফিল খান এবং তার মেডিকেল টিম সেই সমস্ত দুর্গম এলাকায়-

চিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকেন যে সমস্ত এলাকায় সরকারি পরিষেবা পৌঁছায় না বললেই চলে। গত২১ তারিখে তারা আসামের ধুবড়ি জেলায় চিকিৎসা প্রদান করেছেন, গতকাল অর্থাৎ ২২ তারিখে তারা তিন-

বুন্দি দ্বীপে চিকিতসা করেছেন আজ অর্থাৎ ২৩ শে অগাস্ট তারা ফকিরগঞ্জ দ্বীপে চিকিৎসাসেবা দিয়েছেন, আগামীকাল অর্থাৎ ২৪ শে আগস্ট তারা পাতা কান এলাকায় চিকিৎসা করবেন, আগামী পরশু অর্থাৎ ২৫ শে আগস্ট নিম্ন আসামের নলবাড়ি এলাকায় মেডিকেল ক্যাম্প করবেন।

আসাম সরকার তাকে চারদিনের মেডিকেল মেডিকেল ক্যাম্প করার অনুমতি দিয়েছেন কিন্তু ডঃ কাফিল খান জানান, তিনি তাঁর এই পরিষেবা আরো বাড়াতে চান যদি সরকার তা অনুমোদন করেন।

এই সমস্ত এলাকায় ডাক্তার কাফিল খান এখন ত্রাতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন। উল্লেখ্য মাত্র কিছুদিন আগেই বিহারে ভয়াবহ এনসেফ্যালাইটিস রোগে আক্রান্ত শিশুদের চিকিৎসা দেওয়ার জন্য ডাক্তার খান তাঁর মেডিকেল টিম নিয়ে সেখানে হাজির ছিলেন।

ভারতের ওপর ক্ষুব্ধ ট্রাম্প!

স’ন্ত্রা’সবিরোধী লড়াইয়ে পাকিস্তানের প্রশংসা করে ভারতের কড়া সমালোচনা করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। হোয়াইট হাউসে আফগানিস্তান বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে সাংবাদিকদের তিনি বলেন,

সন্ত্রাসবিরোধী যুদ্ধে পাকিস্তান কিছুটা হলেও সহায়তা করেছে। তবে ভারত একদমই করছে না। এটি কিন্তু ঠিক নয়।খবর এক্সপ্রেস ট্রিবিউন ও জিয়ো নিউজের। ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, যুক্তরাষ্ট্র আফগানিস্তান থেকে সেনাদের ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ নিয়েছে।

পাকিস্তান নিজেদের সীমার মধ্যে হলেও স’ন্ত্রা’সীদের বিরুদ্ধে কার্যক্রম চালাচ্ছে। কিন্তু এক্ষেত্রে ভারত তেমন ভূমিকা পালন করছে না। আফগানিস্তানে স’ন্ত্রা’স নির্মূলে ভারত, ইরান, রাশিয়া ও তুরস্কের এগিয়ে আসা উচিত বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, স’ন্ত্রা’স নির্মূলের জন্য আমরা এখানে আরও ১৯ বছর যুদ্ধ করতে পারব না। এ জন্য প্রতিবেশী দেশগুলোর উচিত এ ব্যাপারে পদক্ষেপ নেয়া। এ ব্যাপারে পদক্ষেপ নেয়া।

ট্রাম্পবলেন, যুক্তরাষ্ট্র যদি সাত হাজার মাইল দূর থেকে এসে এখানে সন্ত্রাসবিরোধী অভিযান চালাতে পারে- তা হলে আফগানিস্তানের পাশের দেশ ভারত ও পাকিস্তান কেন আসে না। ও পাকিস্তান কেন আসে না।