পৃথিবীর সর্ববৃহৎ নিরাপত্তা বাহিনী বাংলাদেশের

পৃথিবীর সর্ববৃহৎ নিরাপত্তা বাহিনী বাংলাদেশের
অবিশ্বাস্য লাগলেও সত্য যে বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপি পৃথিবীর সর্ববৃহৎ একক বাহিনী। বর্তমান এক্টিভ ও রিজার্ভ মিলে ৬০ লক্ষাধিক সদস্য আছে আনসারে।

সংখ্যাটা দেখুন একবার ৬০ লক্ষ্য। কখোনো যুদ্ধ হলে তারা প্রত্যেকে সেনাবাহিনীর কমান্ডে রিজার্ভ বাহিনী হিসেবে যুদ্ধে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করবে। অথবা শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষায় কাজ করবে। আনসার বাহিনী বাংলাদেশ যুদ্ধ সামর্থ্যকে আরো দৃঢ় করেছে।

আনসার আরবি শব্দ। এর অর্থ সাহায্যকারী। ১৯৪৭ সালে ভারতীয় গার্ড এর কিছু সদস্য মিলে আনসার বাহিনী গঠন করে। ১৯৪৮ সালে পূর্ব পাকিস্তানের আনসার আইন দ্বারা আনসার বাহিনী পূর্ব পাকিস্তান আনসার হিসেবে গঠিত হয়। একই সালের ২ ফেব্রুয়ারি আনুষ্ঠানিকভাবে আত্মপ্রকাশ করে।

১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় আনসারের সদস্যরা পাকিস্তানের বিপক্ষে যুদ্ধ করতে মুক্তি বাহিনীতে যোগদান করে। দেশ স্বাধীনের পর আবার বাংলাদেশ আনসার আইন দ্বারা এই বাহিনী যাত্রা শুরু করে।

বর্তমানে বাংলাদেশ আনসার দেশের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা, আইন প্রয়োগ ও সংরক্ষণের জন্য গঠিত একটি বাহিনী। এটি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দারা পরিচালিত হয়।
বর্তমানে আনসার বাহিনীর তিনটি শাখা রয়েছে ১. সাধারণ আনসার। ২. ব্যাটালিয়ন আনসার। ৩. গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী (ভিডিপি) । তাদের সম্মিলিত আঁকার ৬০ লক্ষাধিক যা প্যারা মিলিটারি বা একক বাহিনী হিসেবে পৃথিবীর সর্ববৃহৎ বাহিনী।

ব্যাটলিয়ন আনসার সেনাবাহিনীর আদলে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে এবং সেiনাবাহিনীর সাথে একত্রে কাজ করে। গর্ব করার বিষয় আমরা পৃথিবীর সর্ববৃহৎ একক বাহিনীর মালিক।
আবর্তমানে এই বাহীনির নাম পরিবর্তন করে বাংলাদেশ ন্যাশনল গার্ড রাখার প্রস্তাব পর্যালোচনা করা হচ্ছে।
সূত্রঃ মিলেটারি ডিফেন্স ফোরাম।