১১ হাজার ছবিকে হারিয়ে প্রথম হলেন বাংলাদেশি আলোকচিত্রী

ছবি: হাবিবুর রহমানের পুরস্কার জয়ী ছবি
আন্তর্জাতিক আলোকচিত্র প্রতিযোগিতা আগোরা স্মাইল-২০২০ এর বিজয়ী হয়েছেন খুলনার আলোকচিত্রী হাবিবুর রহমান। তার তোলা ‘হ্যাপি চাইল্ড’ ছবিটি সর্বোচ্চ ভোট পেয়ে সেরা ছবি নির্বাচিত হয়। তিনি খুলনার স্থানীয় একটি পত্রিকার সাংবাদিক।

সম্প্রতি স্মাইল-২০২০ থিমে এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে আগোরা। সেখানে সারাবিশ্ব থেকে ১১ হাজারের বেশি ছবি জমা পড়ে। সেসব ছবি থেকে বিচারকরা সেরা ৫০টি ছবি নির্বাচন করেন। এরপর প্রথম ধাপের ভোটিং-এ সর্বোচ্চ ৭৮৩ ভোট পেয়ে ফাইনাল রাউন্ডের জন্য নির্বাচিত হয় হাবিবুর রহমানের ছবি ‘হ্যাপি চাইল্ড’।

ফাইনাল রাউন্ডে পাঁচটি ছবির ওপর দ্বিতীয় ধাপে ৪৮ ঘণ্টা ভোট হয়। সেখানে সর্বোচ্চ এক হাজার ৭৫ ভোট পেয়ে আগোরা স্মাইল-২০২০ আলোকচিত্র প্রতিযোগিতার হিরো নির্বাচিত হন আলোকচিত্রী হাবিবুর রহমান। বুধবার (১৫ জুলাই) বিকেলে এ ফলাফল ঘোষণা করে প্রতিযোগিতার আয়োজক প্রতিষ্ঠান।

বিজয়ী হওয়ার অনুভূতি জানিয়ে তিনি বলেন, এ অর্জন শুধু আমার নয়, এ অর্জন বাংলাদেশের।

আরও সংবাদ

কাবার গায়ে ক্যালিগ্রাফির স্বপ্ন ছোট্ট কন্যা

সৌদিআরবের একটি ছোট্ট কন্যা আরবি ক্যালিগ্রাফিতে অসাধারণ দক্ষতা অর্জন করেছে। মাত্র ১১ বছর বয়সেই সে প্রমাণ করেছে যে, বড় হয়ে সে অনেক গুণী একজন ক্যালিগ্রাফার হবে।

রিমান আছিরি নামের এই শিশুর চিত্রকর্ম ইতিমধ্যেই বড় বড় চিত্র শিল্পী ও ক্যালিগ্রাফারদের বিখ্যাত চিত্রের সঙ্গে তুলনা করা হচ্ছে।

রিমান সৌদি আরবের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে তার চিত্রকর্মগুলি প্রদর্শন করেছে-যেখানে বিখ্যাত চিত্রগ্রাহকরাও তাদের চিত্র নিয়ে হাজির হন। এসব প্রদর্শনীতে সে তার নান্দনিক কাজের জন্য ব্যপক প্রশংসিত হয়েছে।

রিমান আছিরি নিজের ক্যালিগ্রাফি নিয়ে আল আরাবিয়াকে জানায়, আমি একজন ক্যালিগ্রাফার হবো- প্রাইমারি স্কুল থেকেই এই আগ্রহ সৃষ্টি হয়- এজন্য আমি আমার আগ্রহ ও শখ পূরণ করতে আরবি ক্যালিগ্রাফির বিভিন্ন শিক্ষামূলক ভিডিওর সাহায্য নেই। এক্ষেত্রে সৌদির বিখ্যাত দুই চিত্রকর সিরাজুল আমরি ও খুলুদ নায়েফ মেম আমাকে যথেষ্ট সাহায্য করেছেন।

আরবিতে কুফী ও ফাতেমি চিত্রকর্মের প্রতি আলাদা ভালবাসা অনুভূত হয় রিমানের। সে বড় হয়ে এই দুই লিপিতে বড় তারকা শিল্পী হতে চায় বলেও জানায়। তার ইচ্ছা, একদিন সে পবিত্র কাবা শরিফের গায়ে ক্যালিগ্রাফি করবেন- এটিই তার স্বপ্ন। নিজের লালিত স্বপ্ন বাস্তবে রূপ দিতে বাড়িতে কাটানো বেশিরভাগ সময় ক্যালিগ্রাফির অনুশীলন করে সে। একজন ক্যালিগ্রাফার ও চিত্রশিল্পী হয়েও নিজেকে আলোকিত করা যায়-সেই প্রমাণ দিতে মুখিয়ে আছে ছোট্ট রিমান আছিরি।

সূত্র: আল আরাবিয়া