চীনের সীমান্তবর্তী ৩২ রাস্তার কাজ দ্রুত সারতে চায় ভারত সরকার

চীন ইস্যুতে নিজেদের ক্ষমতার পরিধি দুর্বল করতে নারাজ ভারত সরকার। সে কারণে চীনের সীমান্ত লাগোয়া ৩২টি রাস্তা তৈরির কাজ দ্রুত শেষ করতে চাচ্ছে ভারত। এ কাজে গতি আনতে এরই মধ্যে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

গত সোমবার প্রতি প্রকল্পের খুঁটিনাটি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। প্রতিটি প্রকল্প দ্রুত শেষ করে বেইজিংয়ের ওপর চাপ দেওয়ার স্ট্র্যাটেজিতে চলার চেষ্টা করছে মোদি সরকার।

ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের শীর্ষ একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের এক গুরুত্বপূর্ণ রুদ্ধদ্বার বৈঠকে চীন সীমান্তবর্তী ৩২ টি রাস্তা তৈরির কাজ শেষ করা নিয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছে।

ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন সেন্ট্রাল পাবলিক ওয়ার্কস ডিপার্টমেন্ট, বর্ডার রোড অর্গানাইজেশন ও ইন্ডো টিবেটান বর্ডার পুলিশ বা আইটিবিপির শীর্ষ স্থানীয় কর্মকর্তারা।

বার্তা সংস্থা পিটিআই এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ওই ৩২টি রাস্তা শেষ করার জন্য ফাস্ট ট্র্যাক প্রজেক্ট গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত হয়েছে বৈঠকে।

মোট ৭৩টি রাস্তা ভারত-চীন সীমান্ত জুড়ে তৈরি হচ্ছে। সেগুলো ভারতীয় সেনাবাহিনীর যাতায়াতকে আরো মসৃণ করবে।

এর মধ্যে ১২টি তৈরি করছে সেন্ট্রাল পাবলিক ওয়ার্কস ডিপার্টমেন্ট। ৬১টি তৈরি করছে বিআরও। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের সরাসরি তত্ত্বাবধানে এই রাস্তাগুলি তৈরি হচ্ছে। লাদাখে ভারত-চীন দ্বৈরথকে সামনে রেখেই এই কাজে গতি আনতে চাইছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়।

সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস

আরো পড়ুন: ভারতে মাটি খুঁড়ে মিলল ‘লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ’ খচিত স্বর্ণ মুদ্রা

ভারতে তামিলনাড়ুর প্রত্মতত্ত্ব বিভাগ শিবগঙ্গাই জেলার কালাইয়ার কয়েলের কাছে এলানধাক্কারাইয়ে মাটি খুঁড়ে উদ্ধার করেছে সিরিয় সোনার মুদ্রা। ওই স্বর্ণমুদ্রায় আরবিতে খোদাই করা রয়েছে, ‘লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ’ (আল্লাহ্ ছাড়া কোনো উপাস্য নেই)।
মুদ্রাটি ষষ্ঠ শতকের বলে অনুমান করা হচ্ছে। প্রত্মতত্ত্ব বিভাগের এক কর্মী জেমিনি রমেশ বলেছেন, ‘এই মুদ্রা প্রমাণ করে মাদুরাই অঞ্চলে ইসলাম ধর্ম অনেক আগে প্রসার লাভ করেছিল।’ শিক্ষাবিদরা এই এলাকাকে ভাইগাই উপত্যকা সভ্যতার অংশ হিসেবে বর্ণনা করেছেন।

২৩০০ বছর আগের এই সভ্যতার হদিস মেলার পর ২০১৫ সালে এখানে খননকার্য শুরু হয়। মাদুরাইয়ের বাসিন্দা মুহাম্মদ ইউসুফ নামের একজন আইনজীবী বলেছেন, ‘১৪ শতকে মালিক কাফুরের মাদুরাই জয়ের আগেই ইসলাম পৌঁছেছিল এখানে। আরবের সঙ্গে দক্ষিণ ভারতের বাণিজ্যিক সম্পর্ক ছিল আর পান্ড্য রাজত্ব মুক্তার জন্য প্রসিদ্ধ ছিল।’ তার ধারণা, ইসলামের অস্তিত্ব যে এখানে বহু আগে থেকেই ছিল তা খনন চালিয়ে গেলে ক্রমশ প্রকাশিত হবে।

মাদুরাই শহরতলির অদূরে কিঝাড়ি ও শিবগঙ্গাই জেলার সীমান্তে খননকার্য শুরু হয়েছিল চলতি বছরের ১৯ ফেব্রুয়ারি। লকডাউনের আগে এই খননকার্য উদ্বোধন করেছিলেন ওই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী পালানিসামি। লকডাউনের জেরে কাজ বন্ধ থাকলেও আবার তা চালু হয়েছে। সূত্র : মুসলিম মিরর