৭০ বছরের বৃদ্ধা মাকে পিটিয়ে রক্তাক্ত করেছে ছেলে

স্থানীয় সূত্র জানায়, উপজেলার সিন্দুরখান ইউনিয়নের গুলেরগাঁও গ্রামের বৃদ্ধা মাকে দিনের পর দিন মারধর করে আসছে ছেলে জহুর আলী (৪৫)। সর্বশেষ বৃহস্পতিবার (২ মে) সকালে বৃদ্ধা মাকে পিটিয়ে রক্তাক্ত করলে বাধ্য হয়ে কাঁদতে কাঁদতে থানায় গিয়ে ছেলের বিরুদ্ধে অভিযোগ দেন ছুকেরা বেগম।

সিলেট জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলায় ৭০ বছরের বৃদ্ধা মাকে পিটিয়ে রক্তাক্ত করেছে ছেলে। বৃহস্পতিবার (২ মে) সকালে উপজেলার সিন্দুরখান ইউনিয়নের গুলেরগাঁও গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ছুকেরা বেগম জানান, তার দুই ছেলে ও দুই মেয়ের মধ্যে এক মেয়ে মারা গেছে। বাবার বাড়ি থেকে পাওয়া ১৫ শতাংশ জমি রয়েছে বৃদ্ধার। এই জমি বড় ছেলে জহুর আলীকে দিয়ে দেয়ার জন্য বহুদিন ধরে মাকে চাপ দিচ্ছে।

জমি না দেয়ায় বহুবার বৃদ্ধা মাকে মেরে আহত করেছে জহুর। লোকলজ্জার ভয়ে এসব কথা প্রকাশ করেননি মা। বৃহস্পতিবার সকালে পুনরায় জমি লিখে দেয়ার জন্য চাপ দেয় ছেলে জহুর আলী। এতে অপারগতা প্রকাশ করলে একটি বাঁশ দিয়ে বৃদ্ধা মাকে পিটিয়ে রক্তাক্ত করে ছেলে।

প্রতিবেশী ব্যবসায়ী মো. মকসুদ আলী বলেন, জমি লিখে না দেয়ায় বৃদ্ধা মাকে বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত করেছে ছেলে জহুর আলী। এতে বৃদ্ধা মা ছুকেরা বেগমের হাত ও বুক ফেটে যায়। আহত অবস্থায় বৃদ্ধাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যাই। পরে তাকে চিকিৎসা দেয়া হয়। তার হাতে ও বুকে সেলাই দিতে হয়েছে।

মকসুদ আলী আরো বলেন, বৃদ্ধা ছুকেরা বেগমকে ছেলে-মেয়েরা ভরণপোষণ দেয় না। বৃদ্ধ বয়সে মানুষের বাড়িতে কাজ করে তিনি জীবিকা নির্বাহ করেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে শ্রীমঙ্গল থানার ওসি (তদন্ত) সোহেল বলেন, এ ব্যাপারে বৃদ্ধা মায়ের একটি অভিযোগ পেয়েছি। দ্রুত অভিযুক্ত ছেলের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরো পড়ুন: বাংলাদেশে দুর্বল হয়ে মাত্র ৮০ কিঃমিঃ বেগে ঢুকবে ঘুর্ণিঝড় ফণী!

পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ফণী দুর্বল গতিবেগ নিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। ভারতের ওরিশা রাজ্যে বাংলাদেশ সময় শুক্রবার সকাল নয়টার দিকে ১৮০-২০০ কিলোমিটার বেগে আঘাত হেনেছে ফণী। তবে আজ সন্ধ্যার দিকে ফণী বাংলাদেশে ৮০-১০০ কিলোমিটার বেগে প্রবেশ করবে। আজ-কাল দুদিন ধরে দেশজুড়ে থাকবে ফণী’র প্রভাব থাকবে বলেও জানায় আবহাওয়া অধিদফতর।

এ বিষয়ে আবহাওয়া অধিদপ্তরের পরিচালক শামছুদ্দীন আহমেদ বলেন, ফণী ওড়িশা হয়ে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের দিকে যাবে। সেখান থেকে আস্তে আস্তে দুর্বল হয়ে বাংলাদেশের দিকে আসবে। তবে আজ বিকেলের পর তা বাংলাদেশে প্রবেশ করতে থাকবে।

বাংলাদেশের ওপর দিয়ে অতিক্রম করবে সন্ধ্যায়। সন্ধ্যার পর থেকে সারারাত ফণী সাতক্ষীরা, খুলনা, বাগেরহাট, বরিশাল অঞ্চলের দিক থেকে ফরিদপুর, ঢাকা হয়ে ভারতের মেঘালয়ের দিকে যাবে।

এ বিষয়ে তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশে যখন ফণী প্রবেশ করবে, তখন এর গতি অর্ধেকে নেমে ৮০-১০০ কিলোমিটার হবে। ফণীর প্রভাবে আজ রাত ও কাল শনিবার সারা দিন বৃষ্টি থাকবে। তিনি জানান, মোংলা, পায়রা বন্দরে ৭ নম্বর বিপদ সংকেত বহাল রাখা হচ্ছে। আপাতত এর বেশি বাড়ছে না।

সরকার জানিয়েছে, ঘূর্ণিঝড় ফণীর আঘাত মোকাবিলায় প্রস্তুত রয়েছে বাংলাদেশ। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সচিবালয়ে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সভা কক্ষে আন্তমন্ত্রণালয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সমন্বয় কমিটির সভা হয়েছে।

সভায় ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী এনামুর রহমান বলেন, ‘ঘূর্ণিঝড় ‘ফণী’র সম্ভাব্য আঘাতে মানুষের প্রাণহানি রোধ এবং সম্পদের ক্ষতি কমিয়ে আনতে সরকার সর্বাত্মক প্রস্তুতি নিয়েছে। আশা করছি, ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানলেও বড় ধরনের ক্ষয়ক্ষতি হবে না।’ তিনি জানান, বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত ফণীর বর্তমান অবস্থান ও গতিবিধি দুর্যোগ মন্ত্রণালয় এবং সংশ্লিষ্ট দপ্তর, অধিদপ্তর সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণ করছে।